healt tips bangla

(healt tips bangla)রোগ-পাতলা শরীরকে মোটা বানানোর সহজ উপায়।

(healt tips bangla)নিজের রোগা পাতলা শরীর নিয়ে অনেকে চিন্তিত থাকেন? তবে সেই সব লোক যারা তার ওজন ঘরে বসে ন্যাচারাল ভাবে বিনা কোন খরচ করে বাড়াতে চান। তাদের জন্য সকাল থেকে নিয়ে রাত অবধি পুরো দিনের ডায়েট প্ল্যান এর কথা আলোচনা করব। যে আপনাকে কি খেতে হবে কি পান করতে হবে? কোন সময় খেতে হবে ?আর সব থেকে জরুরি যে আপনাকে কোনটা খাওয়া যাবে না ?কোনটা পান করা যাবে না ।?যেটা সবাই ওজন বাড়ানোর আলাদা আলাদা উপায় বলছে কিন্তু এটি কেউ বলে না। যে আমাদের ওজন কেন বাড়ে না, ভালো খাবার খাওয়ার পরও অনেক লোক রোগা পাতলা কেন রয়ে যায়?

কেউ বলে পাঁচ দিনে 10 কিলো ওজন বাড়ান কেউ বলে পাঁচ দিনে 15 কিলো ওজন বাড়ান কিন্তু এমন কিছুই হয় না। যদি আপনি নিচের নিয়ম অনুযায়ী ডায়েট করেন। তাহলে বিনা ঔষধে বিনা কোন সাপ্লিমেন্ট বিনা কোন পাউডার খেয়ে ওজন বাড়ান ।তবে আপনি দশ দিনে দুই কেজির বেশি ওজন কখনোই বাড়াতে পারবেন না মেডিসিন সাপ্লিমেন্ট এর দ্বারা আমাদের ওজন বেড়ে যায়। কিন্তু যখনই আমরা মেডিসিন খাওয়া বন্ধ করে দিই তখন আমাদের ওজন আবার কম হয়ে যায় ।আর ন্যাচারাল উপায়ে বাড়ানো ওজন কোনদিনও কম হয়না এজন্য আমরা আপনাকে পুরো দিনের একদম নেশনাল ডায়েট প্ল্যান বলব। যেটি আপনি বিনা পয়সা খরচ করে ফলো করে আপনি আপনার ফলাফল বুজতে পারবেন।আমরা আপনাকে ছোট ছোট আয়ুর্বেদে বলা কিছু টিপস এর ব্যাপারে বলব যেটা আপনাকে আপনার ডায়েট প্ল্যানের যোগ করতে হবে।

আমাদের ওজন না বাড়ার সবথেকে মূল কারণ হলো ডাইজেস্টিভ সিস্টেম মানে পাচনতন্ত্র ভালোভাবে কাজ না করা । কেননা এটি আমাদের ওজন না বাড়ার সবথেকে মূলত প্রধান কারণ ।আমরা যেসব খাবার খাই ঐ খাবার আমাদের শরীরে ভালো ভাবে হজম না হয়, যে খাবার আমাদের শরীরে খাবারের পুষ্টিগুণ প্রোটিন কার্বোহাইড্রেট ক্যালোরি কে হজম না করতে পারে ।তবে আপনি যেটাই খেয়ে নিন আপনার ওজন কিছুতেই বাড়বে না ।

হজম না হওয়ার কারণ গুলি:(healt tips bangla)

খাবারের সাথে জল পান করা:

কিছু লোকের অনেক খারাপ অভ্যাস এটি খাবারের সাথে জল পান করে ।এমন করলে আমাদের শরীরে খাবার থেকে কোনরকমের পুষ্টিগুণ নিতে পারে না ।কেননা যেটাই আমরা খাই ওই খাবার থেকে আমাদের শরীরে 45 মিনিট অব্দি একটি রস তৈরি হয়। এজন্য আমাদের কখনোই খাবারের সাথে আর খাবার খাওয়ার 45 মিনিট পর্যন্ত জল পান করা একদম ঠিক না। এটা ছিল ওজন না বাড়ার সবথেকে মুখ্য কারণ

ডায়েট প্লান:

কোন সময় খাবেন, আর কিভাবে খাবেন সবার প্রথমে আপনি সকালে উঠেই প্রায় 6 থেকে সাতটার দিকে এক গ্লাস হালকা কুসুম গরম জল পান করবেন ।এটি আমাদের ডাইজেস্টিভ সিস্টেমকে ঠিক করে শরীর থেকে হানিকারক পদার্থকে বাইরে বের করে। পেটকে পুরোপুরিভাবে সাফ করতে সাহায্য করে।

এরপর সকাল আটটার দিকে একটি ছোট আয়ুর্বেদিক টিপস আপনাকে নিতে হবে যেটাকে আয়ুর্বেদের জনক বলা হয়ে থাকে।অভিব্যক্তি বলা হয়েছে একমুঠো কাঁচা ছোলা আর পাঁচ থেকে ছয় আলমন্ড বা কাট বাদাম শুধুমাত্র এই দুটি জিনিস আপনাকে নিতে হবে ।কাঁচা ছোলা আর কাঠ বাদামের ভেতর 95 পার্সেন্ট প্রোটিন পাওয়া যায়। কাঁচা ছোলা আর কাঠ বাদাম কে রাত্রে শোবার আগে জলে ভিজিয়ে রেখে দিন সকালে চিবিয়ে চিবিয়ে খেয়ে নিন।

এরপর সকালে আপনাকে আট থেকে সাড়ে আটটার দিকে করে নিতে হবে ব্রেকফাস্টে ।আপনি দুটি হেলদি পরোটা নিতে পারেন হেলদি পরোটা, এর মানে হল যে আপনি একটু বেশিই পাউডার ব্যবহার করবেন না আপনি চাপাটি ব্যবহার করুন যেটা আলু ও নানান সবজি বেশি থাকে আর ওই একদম কম ব্রেকফাস্ট যদি আপনি ডিমের ওমলেট নিতে পারেন তবে আরো ভালো।

এরপর সকাল 11 টায় মানে ব্রেকফাস্ট করার দু’ঘণ্টা পর আর লাঞ্চ করা। দু’ঘণ্টা আগে আপনাকে দুটি কলার জুস বানিয়ে পান করতে হবে এটাই যদি আপনি একটু টাকা খরচ করতে পারেন তবে এটিতে আপনি এক চামচ পিনাট বাটার ব্যবহার করতে পারেন পিনাট বাটার আর কলা এ দুটি যখন দুধে মিক্স হবে তবে তাতে পাওয়ারফুল রিং তৈরি হয়ে যাবে।

যদি আপনি পিনাট বাটার কিনতে চান তবে আপনি ঠিক অনলাইনে কিনতে পারেন এটি এক কেজি পেয়ে যাবেন মাত্র 450 টাকার আশেপাশে যদি আপনার প্রায় একমাস অব্দি চলবে

এবার বলি লঞ্চের লঞ্চ আপনি যেটা খান বাড়িতে ওটাই খাবেন চেষ্টা করবেন সঙ্গে সবজির সালাদ খাওয়ার ।লাঞ্চের পর তিনটার দিকে এক বাটি ভেজানো কাঁচা ছোলা খাবেন । এইসব জিনিসে হয়তো আপনি বেশি নিউট্রেশন দেখতে পাচ্ছেন না কিন্তু ভেজানো কাঁচা ছোলা আর কাঠবাদাম এইসবের ভেতরে অনেক বেশি মাত্রায় প্রোটিন কার্বোহাইড্রেট পাওয়া যায় রোগা-পাতলা শরীরকে মোটা করার জন্য প্রোটিনের থেকে কার্বোহাইড্রেট দরকার বেশি পরে।তাই ভেজানো ছোলাই কার্বহাইড্রেড মাত্রা বেশি পাওয়া যায়।

এভেনিং টাইম এর মানে সন্ধ্যার সময় বা দিনের যেকোনো সময় একবার এক্সেসাইজ অবশ্যই করবেন কেননা আমাদের শরীরের গ্রাউথ তখনই হবে যখন আমরা রেগুলার এক্সারসাইজ করব আপনি সন্ধ্যার সময় বা যখন পারবেন তখন ব্যায়াম করার আধ ঘণ্টা আগে একটি সেদ্ধ করা আলু খাবেন ।আলুকে আমরা কার্বহাইড্রেটস এর গুপ্তধন বলতে পারি সবজি ভেতর সব থেকে বেশি কার্বহাইড্রেটস পাওয়ায় আলু ভেতরে এজন্য অবশ্যই একটি সেদ্ধ আলু খাবেন।

ডিনারের মানে রাতের খাবার, ডিনারে আপনি হালকা খাবার খাবেন রুটি সবজি আর চালের বেশি ব্যবহার করুন এরপর আপনাকে রাতে শোবার সময় আরেকটি আয়ুর্বেদিক টিপস নিতে হবে ।এজন্য আপনি প্রায় আটটা থেকে দশটা কালো কিসমিস নিবেন এক চামচ মধু এক গ্লাস দুধ নিবেন যখন আপনি কালো কিসমিস আর মধু কে মেশাবেন তখন এটি এমন টিপস তৈরি হয়ে যাবে আমাদের ডাইজেস্টিভ সিস্টেমের পচনতন্ত্রকে কে মজবুত বানাবে আর যেই খাবারই আমরা খাব এটি আমাদের শরীরকে লাগতে থাকবে ।আপনাকে কালো কিসমিস আর মধু মিশ্রণকে রাত্রে শোবার সময় দুধের সাথে নিতে হবে । যদি আপনি এই পুরো ডায়েটিকে রেগুলার ফলো করে নেন তবে ,আপনি বেশি তো নয় দশ দিনে নিজের দু কিলো ওজন সহজেই বাড়াতে পারবেন ।(healt tips bangla)

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *